বাংলাদেশে নয়, ভারতের কলকাতায় ‘নায়করাজ রাজ্জাক সম্মাননা’ পেয়েছেন চিত্রনায়ক আলমগীর। কলকাতার ‘বেঙ্গল ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন চেম্বার অব কমার্স’ তৃতীয়বারের মতো এই আয়োজন করেছে। গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় কলকাতার একটি অভিজাত হোটেলে আয়োজন করা হয় চলচ্চিত্র অঙ্গনের বিশিষ্টজনদের এই সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠান।

সন্ধ্যায় মঞ্চে প্রদীপ জ্বালিয়ে অনুষ্ঠান উদ্বোধন করেন মন্ত্রী ব্রাত্য বসু। উদ্বোধনী নৃত্য পরিবেশন করেন অভিনেত্রী ও নৃত্যশিল্পী ইন্দ্রাণী দত্ত।

এই আয়োজনে ‘হীরালাল সেন সম্মাননা’ পেয়েছেন প্রখ্যাত অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, ‘দেবকী কুমার বোস সম্মাননা’ পেয়েছেন চলচ্চিত্র নির্মাতা বুদ্ধদেব দাশগুপ্ত, ‘কৈলাশ মুখার্জি সম্মাননা’ পেয়েছেন চলচ্চিত্র সমালোচক সাংবাদিক ড. সোমা এ চট্টোপাধ্যায় এবং ‘বিএন সরকার অ্যাওয়ার্ড’ দেওয়া হয় চলচ্চিত্র নির্মাণ প্রতিষ্ঠান ভেঙ্কটেশ মুভিজকে। সেরা অভিনেতা হিসেবে এ বছর জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাওয়া ঋদ্ধি সেনকে দেওয়া হয় বিশেষ পুরস্কার।

আলমগীর আরও বলেন, ‘৪৬ বছর ধরে আমি চলচ্চিত্র অঙ্গনে কিছু দেওয়ার চেষ্টা করে যাচ্ছি। তাই এই সম্মাননা আমাকে চলচ্চিত্র অঙ্গনে আরও অবদান রাখার অনুপ্রেরণা জোগাবে, উৎসাহ দেবে। এটা আমার জীবনের বড় প্রাপ্তি।’

চিত্রনায়ক আলমগীরের হাতে ‘নায়করাজ রাজ্জাক সম্মাননা’ তুলে দেন চিত্রনায়িকা ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত ও শিল্পপতি সঞ্জয় বুধিয়া। এই সম্মান পেয়ে আবেগে আপ্লুত হন আলমগীর। তিনি বলেন, ‘নায়করাজ রাজ্জাকের নামাঙ্কিত এই সম্মাননা পেয়ে আমি গর্বিত হয়েছি। অনুপ্রেরণা পেয়েছি। আর সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের মতো ব্যক্তিত্বের সামনে এই পুরস্কার গ্রহণ করতে পেরে ধন্য হয়েছি। আমি এই পুরস্কার এই মহান শিল্পীর আশীর্বাদ হিসেবে গ্রহণ করে বাংলাদেশে ফিরে যাচ্ছি। এটা আমার বড় পাওয়া। নিজেকে ভাগ্যবান মনে করছি।’

সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের হাতে ‘হীরালাল সেন সম্মাননা’ তুলে দেন মন্ত্রী ব্রাত্য বসু, অভিনেতা প্রসেনজিৎ আর আয়োজক বেঙ্গল ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি ফেরদৌস আল হাসান। সৌমিত্র বলেন, ‘হীরালাল সেনের মতো চলচ্চিত্র অঙ্গনের এত বড় ব্যক্তিত্বের নামাঙ্কিতÍসন্মাননা পেয়ে আমি গর্বিত।’

ভারতের বাংলা ছবির চিত্রতারকাদের ব্যাপারে তিনি বলেন, ‘প্রসেনজিৎ আমার ছোট ভাইয়ের মতো। ও আমাকে অনেক অনুপ্রেরণা জোগায়। ঋতুপর্ণা, পাওলি দাম সবার সঙ্গে আমার পারিবারিক সম্পর্ক। ওরা ভালো শিল্পী। জীবনে আরও উন্নতি করবে। চলচ্চিত্র অঙ্গনকে আরও সমৃদ্ধ করবে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here